রায়চক

পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলায় রায়চক অবস্হিত। কলিকাতা থেকে রায়চকের দুরত্ব ৫০ কিলোমিটার। ডায়মন্ড হারবার থেকে এর দুরত্ব ১৫ কিলোমিটার। গঙ্গার তীরে অবস্হিত রায়চক একটি অতি সুন্দর জায়গা। গঙ্গার একপাশে রায়চক অন্যপাশে হলদিয়া,নুরপুর ইত্যাদী। পিকনিক করতে আসার জন্য রায়চক একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। শুধু পিকনিকই নয়, পিকনিকের সাথে সাথে গঙ্গায় নৌকা বিহার করে এর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যকে উপভোগ করতে পারেন। অসাধারণ অভিজ্ঞতা হবে। যেতে যেতে রায়চক দূর্গ চোখে পড়বে। মাঝ গঙ্গা থেকে এটি দেখতে ভাল লাগে। এখানে পিকনিক করার জন্য অনেক লোক আসে। পিকনিক করার মতো এর চেয়ে আদর্শ জায়গা খুবই কম আছে। গঙ্গার পাড়ে চড়ায় অনেক জায়গা আছে পিকনিক করার। দূরদুরান্ত থেকে লোক এখানে আসে পিকনিক করতে বা ঘুরতে। জনপ্রিয় পিকনিক স্পটের একটি হল এটি। শীতের মরসুমে প্রচুর লোক এখানে পিকনিক করতে আসে। গাড়ী রাখার ব্যাবস্হা আছে। এখানে খাওয়ার দাওয়ারের জন্য ছোটো বড় অনেক রেস্ট্রুরেন্ট আছে। আপনি শিয়ালদহ থেকে ডায়মন্ডহারবার লোকালে সোজা চলে আসুন ডায়মন্ডহারবার স্টেশনে। সেখান থেকে অটো বা গাড়ী নিয়ে পৌছে যাবেন রায়চক। আবার রাস্তায় ডায়মন্ডহারবার রোড বরাবর গেলে পৌছে যাবেন রায়চক। গাড়ী করে সরাসরি রায়চক পৌছে যাওয়া যায়।

অছিপুর পার্ক

বজবজের পূজালির কাছাকাছি গঙ্গার পাড়ে অবস্হিত অছিপুর খুবই জনপ্রিয় পিকনিক স্পট। প্রচুর মানুষ এখানে পিকনিক করতে আসেন। অছিপুরে বেশকিছু চায়না মানুষ বসবস করে। তাই চায়না নতুন বর্ষে এখানে চায়নীজরা তাদের ক্রিয়া কলাপে মেতে ওঠে। তারাতলা থেকে এর দুরত্ব প্রায় ৩০ কিলোমিটার। গঙ্গার তীরে অবস্হিত অছিপুর পার্ক একটি অতি সুন্দর জায়গা। পিকনিক করতে আসার জন্য অছিপুর পার্ক একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। এখান থেকে গঙ্গাকে অতীব সুন্দর দেখায়। গঙ্গার পাড় ধরে হাঁটলে আপনার খুব ভাল লাগবে। এখানে পিকনিকের ব্যবস্হা আছে। আপনি বাসে বা গাড়িতে অনায়াসে ১.৩০ ঘন্টায় অছিপুর পৌছে যাবেন। জনপ্রিয় পিকনিক স্পটের একটি হল এটি। শীতের মরসুমে প্রচুর লোক এখানে পিকনিক করতে আসে। এখানে গাড়ী রাখার ব্যাবস্হা আছে। আপনি শিয়ালদহ থেকে বজবজ লোকালে সোজা চলে আসুন বজবজ স্টেশনে। সেখান থেকে অটো বা টোটো নিয়ে পৌছে যাবেন অছিপুর।