Ask2Q.com এর বই রিভিউ টীমের সদর্স্যা । গতকাল আমি ” মশার ব্যবসা ” বইটি পড়া শেষ করলাম। তাই ভাবলাম মাথায় সব তাজা তাজা থাকতে ছোট্ট একটি রিভিউ লিখে ফেলি।

বই পরিচিতি

  • বইয়েরর নাম: ” মশার ব্যবসা ”
  • মূল নাম: ” মশার ব্যবসা ” ( বাংলা ভাষায় রচিত )
  • লেখকের নাম: শ্রী সঞ্জয় কুমার দাস ( Sri Sanjoy kumar Das )
  • প্রকাশকাল: 2012 ইং
মশার ব্যবসা ” বই এর প্রচ্ছদ

উল্লেখযোগ্য চরিত্র:

  • মশা

কেমন লেগেছে আমার?

বইটি খুব ভাল লেগেছে আমার। আমার এই ধরনের শিশু সাহিত্য ও হাস্যরস যুক্ত পটভুমিতে লেখা বইগুলো ভাল লাগে , পড়ে দেখুন, ভাল লাগবে আশা করি। ‘মশার ব্যবসা’ বইটির রিভিউ করতে গিয়ে প্রথমেই যে কথাটি বলব, এটি একটি ছোট গল্পের সংকলন। বইটি প্রত্যয় প্রকাশণীর কর্ণাধার তপন বাবু অত্যন্ত যত্ন সহকারে ছাপিয়েছেন। বইটির প্রচ্ছদ অসাধারণ। প্রত্যেকটি গল্পই অত্যন্ত সুন্দর।

কাহিনী সংক্ষেপ

কাহিনী সম্পুর্ন না বলে আমি আপনাকে এই বইয়ের কাহিনি সম্পর্কে একটা ধারণা দেব এখন।কাহিনীর শুরু হয় একটি মশা কে নিয়ে। মজাদার কাহিনী , পড়ে দেখুন , যাইহোক, এটাই মুলত সারসংক্ষেপ। তবে অবশ্যই সব মজা নিতে আপনাকে পুরো বইটি পড়তে হবে।

মশার ব্যবসা গল্পটিতে কিভাবে জ্যান্ত বা মরা মশা দিয়ে ব্যবসা করা যায় তার একটি সুন্দর বর্ণনা রয়েছে।শুধু তাই নয়। ঠিকমতো ব্যবসা করলে কোটিপতিও হওয়া যায়। কিভাবে মশা সংগ্রহ করা হয়, কিভাবে তার সংগ্রক্ষণ হয়। দারুন মজাদার ভঙ্গীতে তা বিশ্লেসনের মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে।হাস্যরসাত্বক এই গল্পটি আপনাকে ছুঁয়ে যাবে।

এছাড়াও রয়েছে কিভাবে একটি কাঁঠাল চুরি করে সে ধরা পড়ে যায়। এরপর নিজের সপক্ষে যুক্তি সাজিয়ে কোনক্রমে রক্ষা পেয়ে যায়। বাবা সব নালিশ শোনার পর আইনি ব্যাখ্যা অনুযায়ী তাকে শাস্তি প্রদানের ক্ষেত্রে ছাড় দেয় সবটা নিয়ে অসাধারন এই গল্পটি। এছাড়াও হাস্যরষে সমৃদ্ধ , ঘন্টু মামার সিদ্ধি খাওয়া, ঝাড়গ্রামের পথে, নাটকের গল্প, গোলকধাঁধা সহ আরো পাঁচটি ছোট গল্প।

কাঁঠাল চুরি গল্পটিতে রয়েছে একটি দুষ্টু বাচ্চার দুষ্টুমির হরেক রকম কীর্তি। এছাড়াও হাস্যরষে সমৃদ্ধ ঘন্টু মামার সিদ্ধি খাওয়া, নাটকের গল্প, গোলকধাঁধা গল্পগুলি পাঠককে ছুঁয়ে যাবে। মজার রসায়নে লেখা এই গল্পগুলি একটু অন্য মাত্রা বহন করে। সার্বিকভাবে আপনারা বইটি পড়ুন। ভাল লাগবে। কিশোর গল্পের সংকলন এই বইটিতে লেখক পরম যত্ন সহকারে পাঠকের দরবারে তুলে ধরেছেন।  

এখানে ” মশার ব্যবসা ” বই থেক আমার ভাল লেগেছে এমন কিছু লাইন তুলে দিচ্ছি,

  • মশা ।
  • তবে এ পর্যন্ত আসায় কোন ক্ষতি হয়নি আমার। তোমাকে দেখতে পেলাম!
  • যদি আমি মরে না যাই, আবার আমি আসব তোমার কাছে, ম্যাডাম। সারা দুনিয়া যদি উলটে ফেলতে হয় তবু। থ্রি মাস্কেটিয়ার্স, আ. দুমা
  • বন্ধু, ভালবাসা বড় বিপদজ্জনক জিনিস! এ শুধু দুর্ভাগ্যের দিকে, বেদনার দিকে মানুষকে টেনে নিয়ে যায়। (এথোস টু দারতায়া)

উপসংহার

লেখক : সঞ্জয় কুমার দাস ( Sanjoy kumar Das )

বইটি পড়ার পর আমার একটাই প্রশ্ন, যে লেখক বইটির নাম ” মশার ব্যবসা ” কেন রাখলেন ? কেমন লাগল বইয়ের রিভিউটি আর কোন মতামত থাকলে অবশ্যই জানাবেন , ভাল থাকবেন , বেশি করে বই পড়ুন ও পড়ান।