এল..ডি বাল্ব , টিউব

এল.ই.ডি বাল্ব বা টিউব হল আজকের দিনে সবচেয়ে বেশী বিক্রিত লাইট।যার আলো ঘরের সৌন্দয্যকে অনেক গুণ বাড়িয়ে দেয়।প্রায় সব ঘরেই এর ব্যবহার দেখা যায়।আগে এর দাম অনেক বেশী হলেও আস্তে আস্তে এর দাম কমছে।সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যে।

এল..ডি বাল্ব,টিউব ব্যাবহারের সুবিধা

এল.ই.ডি বাল্ব বা টিউব অন্যান্য বাল্ব বা টিউব বা সি.এফ.এলের চেয়ে অনেক উজ্জ্বল আলো প্রদান করে।অন্যান্য বাল্ব বা টিউবের থেকে এটার ইলেকট্রিক ইউনিট ব্যবহারিক প্রয়োগের ক্ষমতা অনেক কম।অর্থাৎ কম ইলেকট্রিক ব্যবহারেই এটি জ্বলে।এছাড়া এর ঔজ্জ্বল্য বেশী।কম ইলেকট্রিক ওয়াটেজ ব্যবহারের ফলে এর ইলেকট্রিক ইউনিট কম হয়।ফলে মাসিক ইলেকট্রিক খরচ কিছুটা কম হয়।আরো ভালো ভাবে বলা যায় এটি ব্যাবহারের ফলে অনেক সাশ্রয় হয়।অনেক সময় এর ব্যাবহারে ৯০ শতাংশ অব্দি সাশ্রয় হয়।শুধু সাশ্রয়ই নয় এটি ব্যাবহারে প্রায় ৮০ শতাংশ অব্দি কার্য্যকর হয়।যেমন এল.ই.ডি বাল্বে শক্তির প্রায় ৯৫ শতাংশ আলোতে হস্তান্তর হয়।বাকী ৫ শতাংশ উওাপ হিসেবে নষ্ট হয়।অন্যান্য বাল্বের ক্ষেত্রে ৫ শতাংশ আলোতে হস্তান্তর হয়।বাকী ৯৫ শতাংশ উওাপ হিসেবে নষ্ট হয়। যেকোনো বাল্ব বা টিউবের মেয়াদের আয়ুষ্কাল হল সাধারণত ১৪০০ ঘন্টার বেশী।কিন্তু এর আয়ুষ্কাল সাধারণত ৬০০০ ঘন্টার বেশী।অর্থাৎ এল.ই.ডি বাল্বে আয়ুষ্কাল সাধারণ বাল্বের থেকে প্রায় ৫-৬ গুন বেশী।এমনকি সোডিয়াম ভেপারের আয়ুষ্কাল একটি সাধারণ বাল্বের থেকে অনেক বেশী।

এল..ডি বাল্ব,টিউবের উজ্জ্বলতা

এল.ই.ডি বাল্ব ও টিউব অনেক বেশী উজ্জ্বল।কারণ এখানে অনেক বেশী ওয়াটেজ অথবা লুমেন আছে।যা থেকে উদ্ভুদ্ধ শক্তি সরাসরি আলোতে পর্যবাসিত হয়।আপনি যদি একটি ৪০ ওয়াটেজের বাল্ব কেনেন আর পাশাপাশি একটি ৪০ ওয়াটেজের এল.ই.ডি ঔজ্জ্বলার দিক থেকে দুটোর মধ্যে অনেক পার্থক্য।

এল..ডি বাল্ব,টিউব ব্যবহারের অন্যান্য সুবিধা

এল.ই.ডি বাল্ব ও টিউবের ব্যবহার অনেক কম ঝঁকিপূর্ণ।এছাড়া এল.ই.ডি বাল্ব ও টিউবের আকৃতি অনেক ছোটো হয়।যা ব্যবহারের ক্ষেত্রে সুবিধা জনক।ছোটো হওয়ার ফলে এটা নানা আকৃতিতে গড়া সম্ভবপর হয়। সর্বত্র গৃহে কিংবা ব্যবসায়িক জায়গায় এর ব্যবহার বাড়ছে।আগে যেখানে সাধারণ বাল্ব ও পরে সি.এফ.এল ব্যাবহার করার পরেও অন্ধকারকে সম্পূর্ণ ভাবে দূর করতে পারত না।এখন সেখানে এল.ই.ডি ব্যবহারের ফলে অনেক আলোকিত হয়েছে।সুইচ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এল.ই.ডি বাল্ব একদম সঠিক ভাবে জ্বলে ওঠে।মেটাল বাল্বের মতো এর ঔজ্জ্বল্য বা সম্পূর্ণ আলো আস্তে আস্তে বাড়ে না।একেবারে সুইচ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বেড়ে যায়।এল.ই.ডি বাল্ব তাপমাত্রার রকম ফেরে ভালো ভাবে জ্বলে।অর্থাৎ বেশী গরমেই হোক বেশী শীতেই হোক এল.ই.ডি বাল্ব সমানভাবে জ্বলে।এল.ই.ডি বাল্ব বিভিন্ন রং এর হতে পারে।একটা সাদা হয়।হলুদ রংয়ের হয়।অন্যান্য রংয়ের এল.ই.ডি বাল্ব পাওয়া যায়।তবে সর্বত্র এটা পাওয়া যায় না।পরিবেশগত ভাবে এল.ই.ডি বাল্ব ব্যবহারে কোনো ক্ষতি হয় না।বরং একে পরিবেশ বান্ধব বলা যায়।

এল..ডি বাল্বের ইতিহাস

আপনি জানলে অবাক হয়ে যাবেন এল.ই.ডি বাল্বের ব্যবহার কবে শুরু হয়েছিল।এর ব্যবহার চালু হয়েছিল অর্ধ শতাব্দী আগে।আরো নির্দিষ্ট ভাবে বললে ১৯৬২ সালে।নিক হলোনাইক নামক একজন ৩৩ বছর বয়সী ইলেকট্রিক ইঞ্জিনিয়রের সৌজন্যে এল.ই.ডি বাল্ব আবিষ্কৃত হয়েছিল।